Talk about your Favorite Sports here
#862357
Gambhir rushed to hospital for medical check-up

Image

Indian opener Gautam Gambhir was on Saturday rushed to a regional hospital for a pre-cautionary medical examination for minor concussion after he injured himself on the 2nd day of the 4th and final cricket Test against England here. Gambhir`s head hit the soil hard while trying a catch yesterday and as he was feeling not comfortable today, he was taken to the clinic for a diagnostic.
Rahul Dravid opened in the Indian respond along with Virender Sehwag after England announced their 1st innings at 591 for 6. Gambhir rushed to hospital for health-related check-up. “Gambhir had a slight concussion when he hit the soil while trying to catch a ball a day ago. As he was continuing to feel not comfortable today, he was sent for a precautionary diagnostic. The medical check-up is underway,” a BCCI report says.
Gambhir had also missed the 2nd Test at Trent Bridge after he was hit on his left shoulder by a sweep shot by English batsman Matt Prior in the 1st game at Lord`s.
By Advertisement Bot
#...?
#862362
শেষম্যাচের জয়ে স্বান্ত্বনা খুঁজে পেল বাংলাদেশ

Image

সিরিজ হারের যন্ত্রণা হয়তো ভোলার নয়, তবে শেষ দুটি ম্যাচ জিতে ক্ষতের দাগ কিছুটা হলেও শুকাতে পেরেছে বাংলাদেশ। জিম্বাবুয়ের বিরুদ্ধে শেষ ম্যাচটি অনায়াসে জয় আফসোসকে আরো বাড়িয়ে দিল বাংলাদেশের। টেস্ট সিরিজের হারের ক্ষত শুকানোর ভালো উপলক্ষ হতে পারতো ওয়ানডে সিরিজের জয়, কিন্তু ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় টানা তিনটি ওয়ানডে হেরে হারের যন্ত্রণাকে আরো বাড়িয়ে দিয়েছে। অবশেষে পুরানো ছন্দে ফিরে গতকাল বুলাওয়ের শেষ ম্যাচে জিম্বাবুয়েকে ৯৩ রানে বিশাল ব্যবধানে হারিয়ে সাকিবরা সিরিজকে ২-৩ রূপান্তরিত করতে পেরে খুশি।

টানা হারের খোলস থেকে বাংলাদেশ মুক্ত হয়েছে চতুর্থ ম্যাচেই। শেষ ম্যাচে জয় নিয়ে ভালো সমাপ্তির আশায় ছিল বাংলাদেশ। সেই আশা পূরণ হয়েছে ঠিকই, কিন্তু জিম্বাবুয়ে সফর থেকে ব্যর্থতার তিক্ত অভিজ্ঞতা নিয়ে বাড়ি ফিরতে হচ্ছে সাকিবদের। কষ্ট সেখানেই, ২৫৩ রান করা বাংলাদেশের সামনে জিম্বাবুয়েনদের অসহায় আত্মসমর্পণ দেখে অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের মনে কষ্ট বেড়ে গেছে। আফসোস থাকছে, তৃতীয় ম্যাচটি যদি ৫ রানে না হারত তারা! অধিনায়ক এই সিরিজ থেকে অনেক কিছু শিক্ষার বিষয়বস্তু পেয়েছে, তাই ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে আসন্ন হোম সিরিজে এই শিক্ষাটাকে কাজে লাগানোর চেষ্টা করবেন। ‘এই সিরিজ থেকে আমরা অনেক কিছু শিখেছি, এখনো শিখছি। গত তিন মাস আমরা আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলেনি। তাই টেস্ট ও ওয়ানডে সিরিজ আমাদের হারতে হয়েছে। তবে আমি খুশি, শেষ ম্যাচটি জিততে পারায়’। জিম্বাবুয়েকে ৯৩ রানে হারিয়ে গতকাল বুলাওয়ের মাঠে দাঁড়িয়ে ক্যামেরার সামনে এই কথাগুলো বললেন অধিনায়ক। বলার সময় তার চোখেমুখেও ফুটে উঠেছে আফসোস। শেষ দুটি ম্যাচের পারফর্মেন্স যদি সিরিজের শুরু থেকে হত, তাহলে সমালোচকদের মুখ যেমন বন্ধ হত তেমনি প্রতিপক্ষকে ঘায়েলও করতে পারতো। কিন্তু সেটি হয়নি, আর সিরিজ হারের যন্ত্রণাকে সান্ত্বনা হিসেবেই দেখছেন দু্টি ম্যাচের জয়।

ওয়ানডে সিরিজটি হারলেও এখান থেকে অনেক ইতিবাচক দিক খুঁজে পেয়েছে বাংলাদেশ টিম ম্যানেজম্যান্ট। তরুণ দুই খেলোয়াড় শুভগত হোম ও নাসির হোসেনের ফর্ম। অধিনায়ককে বেশ বিস্মিত করেছে এই দুইজনের পারফর্মেন্স। সাকিব তাই বললেন, ‘আমি তরুণদের পারফর্মেন্সে খুশি, তারা তাদের সামর্থ্য দেখিয়েছে। এটিই আমাদের ইতিবাচক দিক, তাছাড়া দলের ব্যাটসম্যানরা শেষ ম্যাচটিও ভালো খেলেছে। মোট কথা, সিরিজ হারার পর শেষ দুটি ম্যাচে আমরা ক্লিক করতে পেরেছি আর জয় পেয়েছি’।

২৫৩ রানের টার্গেট দিয়ে জিম্বাবুয়ের ঘরে শুরুতেই হামলা চালান গত দুই ম্যাচে চার উইকেট করে নেয়া রুবেল হোসেন। জিম্বাবুয়ে অধিনায়ক ব্রেন্ডর টেইলরকে ফিরিয়ে বাংলাদেশকে উত্সব এনে দেন। এরপর অবশ্য ৫৭ রানের দ্বিতীয় উইকেট জুটিটি দুশ্চিন্তায় ফেলে দিয়েছিল বাংলাদেশকে, তবে দলের কাণ্ডারি সাকিবই সেই জুটি ভেঙ্গে স্বস্তি ফিরিয়ে আনেন। সাকিবের কাঁধে ভর করে বাংলাদেশের বহু ম্যাচ জেতার ঘটনা রয়েছে, কালও তার ব্যতিক্রম হয়নি। মাত্র ২১ রানের জন্য ক্যারিয়ারের ষষ্ঠ সেঞ্চুরি পাননি বটে, তবে সেটি পুষিয়ে দিয়েছেন বল হাতে দুই উইকেট নিয়ে। আঙ্গুলের ব্যথা নিয়েও কাল মূল্যবান ৭ ওভার করেছেন যেখান থেকে জিম্বাবুয়েনরা পেয়েছেন ২৬টি রান। ম্যান অব দ্য ম্যাচ সাকিব এই ম্যাচের জয়ের পিছনে বোলারদের ভূমিকার কথা স্বীকার করেছেন। বললেন, ‘ দলের প্রত্যেকের এই জয়ের পিছনে অবদান রয়েছে। বিশেষ করে বোলাররা দারুণ বল করেছে। আমরা এখন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরে এসেছি, পিছনের দিনগুলো প্রত্যেকের জন্য মোটেও ভালো যায়নি’।

ওয়ানডে সিরিজের শুরু থেকে আঙ্গুলের ব্যথায় ভুগছিলেন সাকিব। কাল ৭১ বলে ১টি ছয় ও ৫টি চারে ৭৯ রানে আউট হয়েছেন, বল হাতেও চমত্কার বোলিং করেছেন। এ প্রসংগে তিনি বলেন, ‘অবশ্যই আঙ্গুলে অনেক ব্যথা করেছে। কষ্টও দিয়েছে, তবে আমি চিন্তিত নই। কারণ, এটি মারাত্মক কিছু হয়নি’।

টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে গতকাল বাংলাদেশের ব্যাটিংয়ে ফুটে উঠে একটু ভিন্ন চিত্র। বল মারার তুলনায় উইকেটে টিকে থাকার লড়াই ছিল সবার মধ্যে। দুর্ভাগ্য তামিম ইকবালের, স্বভাব বিরোধী ব্যাটিং করে মাত্র ৫ রানের জন্য ফিফটি পাননি। তেমনি মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ অধিনায়ককে সঙ্গে নিয়ে ১০৭ রানের পার্টনারশীপ গড়ে নিজে ৬৭ বলে ৬০ রানের দুর্দান্ত একটি ইনিংস খেলেছেন। রিয়াদের ঝড়ো ইনিংস এবং সাকিবের ৭৯ রানে বাংলাদেশ পায় ২৫৩ রান।

জিম্বাবুয়ে সিরিজ জেতার পাশাপাশি তরুণ বোলার ব্রায়ান ভিটোরিকে খুঁজে পেয়েছে বিধায় স্বস্তি পাচ্ছে স্বাগতিকরা। পরপর পাঁচ উইকেট নেয়ায় ম্যান অব দ্য সিরিজ তিনি, তার পরিবর্তে খেলতে আসা কিগান মেথের জন্য অবশ্য কালকের দিনটি বড়ই দুর্ভাগ্যের। কারণ, তার ইনিংসের শেষ বলে সজোরে ব্যাট চালিয়ে মুখ থেকে রক্ত ঝড়িয়ে আপাতত ক্রিকেট থেকে দূরে পাঠিয়ে দিয়েছেন বাংলাদেশের তরুণ ব্যাটসম্যান নাসির হোসেন। নাসিরকে মেইথ মনে রাখবেন অনেকদিন, যেমন জিম্বাবুয়ের এই সিরিজের কথা অনেকদিন মনে থাকবে বাংলাদেশের।

স্কোরকার্ড (টস:জিম্বাবুয়ে)

বাংলাদেশ ইনিংস রান বল ৪/৬

তামিম ক চিগুম্বুরা ব প্রাইস ৪৫ ৬৫ ৫/০

কায়েস ক টাইবু ব মেথ ৯ ২৬ ০/০

আশরাফুল ক টাইবু ব চিগুম্বুরা ১৫ ২৪ ৩/০

মুশফিক ক সিবান্দা ব প্রাইস ২০ ৩১ ১/০

সাকিব ব মেথ ৭৯ ৭১ ৫/১

শুভগত ক ওয়ালার ব প্রাইস ৩ ১০ ০/০

রিয়াদ অপরাজিত ৬০ ৬৭ ৫/১

নাসির অপরাজিত ৮ ৬ ১/০

অতিরিক্ত ১৪

মোট: ৬ উইকেটে (৫০ ওভার) ২৫৩

উইকেট পতন: ১/৩০, ২/৭০, ৩/৭৯, ৪/১১৯, ৫/১২৭, ৬/২৩৪।

বোলিং বিশ্লেষণ: এমপফু ১০-১-৫৩-০, মেথ ১০-০-৫৬-২, চিগুম্বুরা ৯-০-৪৪-১, উতসেয়া ১০-০-৩৯-০, প্রাইস ১০-২-৫১-৩, ওয়ালার ১-০-৭-০।

জিম্বাবুয়ে ইনিংস রান বল ৪/৬

টেইলর ক মুশফিক ব রুবেল ০ ২ ০/০

সিবান্দা ক তামিম ব সাকিব ৩৪ ৪৪ ৫/২

মাসাকাজ্জা এলবি ব রাজ্জাক ২৮ ৪৩ ৩/০

টাইবু এলবি ব সাকিব ৭ ১৪ ১/০

মুতিজোয়া রানআউট ২৭ ৩৮ ২/০

ওয়ালার ক কায়েশ ব রিয়াদ ৫১ ৭০ ৪/০

চিগুম্বুরা ক কায়েশ ব রিয়াদ ১ ৫ ০/০

উেসয়া ক রাজ্জাক ব রিয়াদ ৭ ১২ ০/০

প্রাইস ক নাসির ব শফিউল ০ ২ ০/০

এমপফু অপরাজিত ০ ০ ০/০

মেইথ আঘাতপ্রাপ্ত - - -/-

অতিরিক্ত ৫

মোট (১০ উইকেট, ৩৮.২ ওভার) ১৬০

উইকেট পতন: ১/২, ২/৫৯, ৩/৭৩, ৪/৭৩, ৫/১৪০, ৬/১৪৫, ৭/১৬০, ৮/১৬০, ৯/১৬০।

বোলিং বিশ্লেষণ: শফিউল ৬.২-০-২৬-১, রুবেল ৬-০-৩৪-১, রাজ্জাক ৯-১-৩১-১, সাকিব ৭-০-২৬-২, নাসির ৪-০-১৮-০, আশরাফুল ২-০-১১-০, রিয়াদ ৪-০-১৩-৩।

ম্যান অব দ্য ম্যাচ: সাকিব আল হাসান

ম্যান অব দ্য সিরিজ: ব্রায়ান ভিটোরি

ফল: বাংলাদেশ ৯৩ রানে জয়ী

সিরিজ: জিম্বাবুয়ে ৩-২ জয়ী।
#863556
Boom Boom Afridi wants to make comeback

Image

Ex- Pakistani skipper, Shahid Afridi, has accepted that he misses playing for the national squad and is dying to make a return, after a much publicized clash with the PCB.
“My heart bleeds to play for Pakistan and i’m desperate playing for my state. I even desired to visit to Zimbabwe and I hope at the correct time I will make a return to the side,” Afridi mentioned.
Shahid Afridi declared his retirement after the tour of the West Indies, where the cricketer was involved in an altercation with coach Waqar Younis.
This led to the board being taking part, which suspended the cricketer and punished him a big fine as well, which led him to hang his boots, with quick outcome.
However, since then Waqar has resigned from the post, mentioning private and health-related factors, while PCB has also show the door to ex- manager, Intikhab Alam and asst Coach, Aaqib Javed.
Afridi was shocked to see the ex- coach resigning, “I have no idea but I think if he has any problems he should have faced them. He did not look to have health issues to me but now if that has changed I’m not sure about that,” Afridi says.
#863561
আরো অপেক্ষায় থাকতে হবে শচীনকে

Image

শেষ পর্যন্ত আফসোসকে সঙ্গী করে একশ’তম সেঞ্চুরি থেকে বঞ্চিত হলেন শচীন টেন্ডুলকার। ইতিহাসের সাক্ষী হতে তাকে আরো কিছুদিন অপেক্ষা করতে হবে। ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে শেষ টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে মাত্র ৯ রানের জন্য ক্যারিয়ারের ৫২তম সেঞ্চুরি ও টেস্ট এবং ওয়ানডে মিলে একশ’তম সেঞ্চুরি থেকে বঞ্চিত হলেন। টিম ব্রেসনানের বলে এলবি হওয়ার পর পুরো ওভাল যেন স্তব্দ হয়ে যায়।

শেষ টেস্টে শচীনের সেঞ্চুরির জন্য গতকাল শেষদিনে ওভাল যেন নতুন করে সেজে বসেছিল। মাস্টার ব্লাষ্টার এই ব্যাটসম্যানের অরাধ্য সেঞ্চুরি দেখতেই সকাল থেকে ওভাল ভরে যায়। কিন্তু লাঞ্চের পর ব্রেসনানের বলে দুর্ভাগ্যভাবে এলবিডব্লিউয়ের ফাঁদে পড়ে শেষ পর্যন্ত অধরাই থেকে গেল শচীনের সেঞ্চুরি।

টেস্ট ও ওয়ানডে ম্যাচ মিলিয়ে ৯৯ সেঞ্চুরি মালিক শচীন, বিশ্বকাপে নাগপুরে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ১১১ রানের পর থেকে তার অপেক্ষার প্রহর শুরু হয়। এরপর শচীন চারটি ওয়ানডে ও চারটি টেস্ট খেললেও মূল্যবান সেঞ্চুরির দেখা পাননি। বিশ্বকাপে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে সুযোগ তাকে (৮৫) হাতছানি দিয়েছিল, কিন্তু তা হয়নি।

ইংল্যান্ডে আসার পর ভারতের এই ব্যাটসম্যানকে ঘিরেই আয়োজন করা হয় সেঞ্চুরি উদযাপনের মঞ্চ। চার টেস্টে তার ব্যাট থেকে আসে ৩৪, ১২, ১৬, ৫৬, ১, ৪০, ২৩ ও ৯১ রান। ১৮১ ম্যাচে ১৪৯৬৫ রান তার, সেঞ্চুরির পাশাপাশি ১৫ হাজার রানেরও একটি মাইলফলক ছিল তার সামনে। টেস্টে ৫১টি সেঞ্চুরি ও ৬১টি হাফ সেঞ্চুরি রয়েছে তার নামের পাশে। ৪৫৩টি ওয়ানডে ম্যাচে ১৮১১১ রান তার, ৪৮টি সেঞ্চুরির সাথে ৯৫টি হাফ সেঞ্চুরি। টেস্ট ও ওয়ানডে ম্যাচে সর্বাধিক রানের মালিক শচীন, সর্বোচ্চ ওয়ানডে রানও (২০০) তার। সর্বোচ্চ সেঞ্চুরির রেকর্ড তার নামের পাশে, শুধু একটি রেকর্ডই বাকি। ডন ব্র্যাডম্যানের উত্তরসূরি শচীনের নতুন রেকর্ড ছুঁতে প্রয়োজন একটি সেঞ্চুরি। আপাতত ইতিহাস তৈরি করতে আরো কিছুদিন অপেক্ষা।

৩ সেপ্টেম্বর থেকে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে শুরু হচ্ছে পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ। দর্শকদের অপেক্ষা সেখানেই শেষ করবেন শচীন। টেস্টের অতৃপ্তি ওয়ানডে সিরিজে ঘোচাবেন তিনি।
#863564

জিম্বাবুয়ে সিরিজের পারফর্মেন্স নিয়ে হতাশ প্রধান নির্বাচক

ক্রিকেটারদের ব্যর্থতার তদন্ত নাও হতে পারে

ভালো সমাপ্তি নিয়ে দেশে ফিরছে বাংলাদেশ। দু:স্বপ্নের জিম্বাবুয়ে সফরের শেষটা জয় পাওয়ায় পরাজয়ের খোলস থেকে মুক্তি পেয়েছে ক্রিকেটাররা। এবার ঘরে ফেরার পালা সাকিবদের। বিমান ধর্মঘট উঠে যাওয়ার পরও ক্রিকেটারদের হারারে গিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার বিমান ধরতে হবে। জোহানেসবার্গ থেকে দোহা এরপর তারা ঢাকায় ফিরবে আগামীকাল ভোর তিনটায়।

জিম্বাবুয়ে এই সিরিজকে অনেকগুলো কারণে মনে রাখবে ক্রিকেটাররা। পরাজয় সইতে সইতে অবশেষে চতুর্থ ওয়ানডে ম্যাচের জয় মুক্তি দিয়েছে সাকিবদের। ব্যাটিং, বোলিং ও ফিল্ডিংয়ের ব্যর্থতায় সফরের শুরু থেকে টানা হারতে থাকে বাংলাদেশ। প্রস্তুতি ম্যাচ, টেস্ট ম্যাচ এবং ওয়ানডে সিরিজ হারার পর অবশেষে শেষ দুটি ম্যাচ জেতায় হোয়াইটওয়াশের হাত থেকে রেহাই পেয়েছে সফরকারীরা। সিরিজ হারের যন্ত্রণা তো রয়েছে, সাথে রয়েছে সমালোচকদের তীর। সবকিছু মিলে দুর্বিসহ একটি সফর কাটিয়েছে বাংলাদেশ।

সফরের শুরু থেকে বাংলাদেশ দলের ঝামেলা সঙ্গী হয়েছে। প্রস্তুতি ম্যাচের অভাবে ভুগতে থাকা দলটির দক্ষিণ আফ্রিকায় গিয়ে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলার কথা ছিল, কিন্তু বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি), অর্থের দোহাই দিয়ে সেটি বাতিল করেছে। জিম্বাবুয়ে একটি বাড়তি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলার প্রস্তাব দিলেও জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট এসোসিয়েশন সেটি নাকচ করে দিয়েছে। আর সর্বশেষ দোহা বিমান বন্দরে ক্রিকেটারদের আটকে থাকার ঘটনা তো রয়েছেই।

একটি টেস্ট ও পাঁচটি ওয়ানডে ম্যাচ খেলতে বাংলাদেশ দল জিম্বাবুয়ে সফরে যায় ২৭ জুলাই। এই সফরের সাফল্য-ব্যর্থতার রিপোর্ট বিসিবির কাছে জমা দেয়া হবে বলে জানা যায়। ব্যর্থতা থাকলে বিসিবি ক্রিকেটারদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিবেন বলে প্রথমে জানা গেলেও পরে বোর্ড সভাপতি নিজেদের উপর দায় চাপিয়ে এড়িয়ে যান। আর এড়িয়ে যাওয়াটাই প্রমাণ করে, ক্রিকেটারদের ট্যুর রিপোর্টের উপর ভিত্তি করে এবারো কোন ব্যবস্থা নিচ্ছে না বিসিবি। জিম্বাবুয়ে সফরে কেন এই ব্যর্থতা তা হয়তো আড়ালেই থেকে যাবে সবার কাছে।

প্রধান নির্বাচক আকরাম খানও হতাশ ক্রিকেটারদের পারফর্মেন্স নিয়ে। কারণ, তিনিও আশা করেননি বাংলাদেশ এভাবে সিরিজ হারবে জিম্বাবুয়ের কাছে। ‘টেস্ট ম্যাচ খেলার সময় আমার কাছে মনে হয়েছে ক্রিকেটাররা অনেকদিন পর টেস্ট খেলছে। ব্যাটসম্যানদের ধারাবাহিকতা ছিল না। শুধু তাই নয়, গত তিন/চার বছর ধরে ক্রিকেটাররা একইভাবে পারফর্মেন্স করে আসছে ব্যতিক্রম দুই একজন ক্রিকেটার ছাড়া’। গত বছর দেশের মাটিতে নিউজিল্যান্ড ও জিম্বাবুয়ে সফর বাদ দিলে প্রতিটি সিরিজেই ক্রিকেটারদের পারফর্মেন্স ছিল হতাশজনক। নিউজিল্যান্ড সফরে তো অধিনায়ক সাকিব আল হাসান একাই দলকে জিতিয়েছেন। প্রধান নির্বাচক এই সমস্যা থেকে উত্তরণের পথ খুঁজছেন। শুধু ব্যাটসম্যান নয়, বোলারদের পারফর্মেন্স নিয়েও চিন্তিত আকরাম খান। ‘বোলারদের পারফর্মেন্স নিয়েও আমি হতাশ, বিশেষ করে স্পিনার আব্দুর রাজ্জাকের পারফর্মেন্স। তার উপর ভরসা ছিল, কিন্তু তিনি ভালো বল করতে পারেননি’।

সিরিজ হারার পর জবাবদিহিতা না থাকলেও ক্রিকেটাররা অবশ্য বেশ লাভবান হচ্ছেন এই সিরিজ থেকে। প্রতিটি ক্রিকেটারই একটি টেস্ট ও পাঁচটি একদিনের ম্যাচ খেলার জন্য চার লাখ ষাট হাজার টাকা করে পেয়েছেন। দেশের মাটিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে টেস্ট ও ওয়ানডে সিরিজ খেলবে বাংলাদেশ। প্রধান নির্বাচক মনে করেন. সিরিজটি বেশ কঠিন হবে। তিনি বলেন, ‘আমাদের জন্য সেই সিরিজটি সত্যি কঠিন সিরিজ। ওয়েস্ট ইন্ডিজের জন্য প্রস্তুতি শুরু হবে সেপ্টেম্বরের প্রথম সপ্তাহ থেকে।
#863565
বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে ওয়ানডে সিরিজের সেরা পাঁচ ব্যাটিং ও বোলিং


বাংলাদেশ দল

++সেরা পাঁচ ব্যাটসম্যান

খেলোয়াড় ম্যাচ রান সর্বোচ্চ গড় ১০০/৫০

সাকিব আল হাসান ৫ ২১৬ ৭৯ ৫৪.০০ ০/২

মুশফিকুর রহিম ৫ ২০৮ ১০১ ৪১.৬০ ১/১

তামিম ইকবাল ৫ ১৫৭ ৬১ ৩১.৪০ ০/১

মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ ৫ ৮২ ৬০* ২৭.৩৩ ০/১

ইমরুল কায়েস ৫ ৭২ ২৮ ১৪.৪০ ০/০

++সেরা পাঁচ বোলিং

খেলোয়াড় ম্যাচ ওভার রান উইকেট সেরা

রুবেল হোসেন ৫ ৪৫ ১৮২ ১১ ৪/২৬

মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ ৫ ৩৪ ১৪৪ ৬ ৩/১৩

সাকিব আল হাসান ৫ ৩৭ ১৭৬ ৬ ২/২৬

শফিউল ইসলাম ৫ ৩৭.২ ১৫৮ ৫ ২/৪৭

আব্দুর রাজ্জাক ৪ ২৬.৪ ১১২ ২ ১/৩১



জিম্বাবুয়ে দল

++সেরা পাঁচ ব্যাটসম্যান

খেলোয়াড় ম্যাচ রান সর্বোচ্চ গড় ১০০/৫০

ভুসি সিবান্দা ৫ ২৪২ ৯৬ ৪৮.৪০ ০/২

হ্যামিল্টন মাসাকাজ্জা ৫ ১৮১ ৭৪৩ ৬.২০ ০/১

টাটেন্ডা টাইবু ৫ ১৫৮ ৮৩ ৩৯.৫০ ০/২

ব্রেন্ডন টেইলর ৫ ১২৩ ১০৬ ২৪.৬০ ১/০

এল্টন চিগুম্বুরা ৫ ৬৬ ৩১ ১৬.৫০ ০/০

++সেরা পাঁচ বোলিং

খেলোয়াড় ম্যাচ ওভার রান উইকেট সেরা

ব্রায়ান ভিটোরি ৩ ২৯.৩ ৯৫ ১১ ৫/২০

প্রসপার উতসেয়া ৫ ৫০ ২৩৮ ৬ ৩/৪৭

রে প্রাইস ৪ ৩৮ ১৬৮ ৫ ৩/৫১

এল্টন চিগুম্বুরা ৫ ৩২ ১৪৯ ৪ ২/৩৫

ক্রিস্টোফার ৫ ৪৭ ২০৭ ৪ ২/৪৩


#863568
ভারতকে ইংল্যান্ডের হোয়াইটওয়াশ

ভারতকে হোয়াইটওয়াশ করেই র্যাংকিংয়ের শীর্ষে উঠা উদযাপন করল ইংল্যান্ড। গ্রায়েম সোয়ানের দুর্দান্ত বোলিংয়ে ভারতীয় ব্যাটিং হুড়মুড় করে ভেঙ্গে পড়ায় শেষ পর্যন্ত হোয়াইটওয়াশই হতে হল সফরকারীদের। ইনিংসহার এড়াতে হলে দ্বিতীয় ইনিংসে ভারতকে করতে হত অন্তত ২৯১ রান। কিন্তু তাদের দ্বিতীয় ইনিংস ২৮৩ রানে থেমে যাওয়ায় ইনিংস ও আট রানে ওভাল টেস্টে হারতে হল মহেন্দ্র সিং ধোনির দলকে। ফলে আগের তিন টেস্টে হারায় ৪-০ ব্যবধানে হেরে হোয়াইটওয়াশ হতে হল সফরকারীদের।

আগের দিনের দুই অপরাজিত ব্যাটসম্যান শচীন টেন্ডুলকার ও অমিত মিশ্র গতকাল সকালে বেশ ভালভাবেই শুরু করেন। হোয়াইটওয়াশের লজ্জা এড়াতে বেশ দৃঢ়প্রতিজ্ঞ ছিলেন দু’জন। ম্যাচের চতুর্থ দিন ৩৫ রানে থাকা শচীন তার হাফ-সেঞ্চুরি করতে বেশি সময় নেননি। জেমস অ্যান্ডারসনের বলে কাট করে একরান নিয়ে পঞ্চাশের ঘরে পৌঁছান তিনি। সাথে তার সঙ্গী নাইটওয়াচম্যান মিশ্র দারুণ ব্যাটিং করতে থাকায় ম্যাচ বাঁচানোর স্বপ্ন দেখার সাহস পায় ভারত। দলের বাঘা বাঘা ব্যাটসম্যানদের লজ্জা দেয় মিশ্রর ব্যাটিং। দু’জন মিলে চতুর্থ উইকেটে যোগ করেন ১৪৪ রান। তাদের ব্যাটিং দেখে মনে হচ্ছিল ম্যাচ না হোক অন্তত ইনিংস হার এড়াতে পারবে তারা। কিন্তু দলীয় ২৬২ রানে ব্যক্তিগত ৮৪ রানে মিশ্র আউট হবার পর একই রানে শচীন (৯১) আউট হয়ে গেলে ইনিংস হার এড়ানো সম্ভব হয়নি ভারতের পক্ষে। সেঞ্চুরির খুব কাছে গিয়েও নয় রান আগে থাকতে টিম ব্রেসনানের বলে লেগ বিফোরের ফাঁদে পরে প্যাভিলিয়নে ফেরেন তিনি। যদিও আউট হবার পর শচীনের শরীরের ভাষা দেখে মনে হচ্ছিল তার আশা ছিল আম্পায়ার তার পক্ষেই রায় দিবেন। এরপর ব্যাট করতে নেমে ধোনি, রায়নারা প্রতিরোধ গড়ে তুলতে না পারায় ২৮৩ রানেই শেষ হয় তাদের দ্বিতীয় ইনিংস। শেষ ২১ রানে সাত উইকেট হারায় ভারত। ফলে সিরিজে দ্বিতীয় বারের মত ইনিংস ব্যবধানে হারতে হয় সফরকারীদের।

১০৬ রানে ছয় উইকেট নিয়ে গ্রায়েম সোয়ান ভারতীয়দের সর্বনাশ করেন। স্টুয়ার্ট ব্রড দুটি এবং অ্যান্ডারসন ও ব্রেসনান একটি করে উইকেট নেন। প্রথম ইনিংসে ডাবল সেঞ্চুরি করায় ম্যাচ সেরার পুরস্কার পান ইয়ান বেল। ২৫ উইকেট নিয়ে সিরিজের সর্বাধিক উইকেট সংগ্রাহক ব্রডের সাথে ম্যান অব দ্য সিরিজের পুরস্কার ভাগাভাগি করে নেন হন চার ম্যাচে তিন সেঞ্চুরিসহ ৪৬১ রান করা ভারতের রাহুল দ্রাবিড়।

এর আগে, ইংল্যান্ডের প্রথম ইনিংসের চেয়ে ১৬২ রানে পিছিয়ে থেকে চতুর্থ দিন শেষ করে সফরকারী ভারত। দিনের তৃতীয় সেশনে ব্যাট করতে নেমে তিন উইকেট হারিয়ে সংগ্রহ করে ১২৯ রান। টেন্ডুলকার ৩৫ ও নাইটওয়াচম্যান মিশ্র আট রান নিয়ে ব্যাট করছিলেন।


স্কোরকার্ড

ইংল্যান্ড প্রথম ইনিংস ৫৯১/৬ ডিক্লেয়ার

ভারত প্রথম ইনিংস ৩০০

ভারত দ্বিতীয় ইনিংস রান

সেবাগ ব সোয়ান ৩৩

দ্রাবিড় ক কুক ব সোয়ান ১৩

লক্ষণ ব অ্যান্ডারসন ২৪

শচীন এলবিডব্লিউ ব ব্রেসনান ৯১

মিশ্র ব সোয়ান ৮৪

রায়না এলবিডব্লিউ ব সোয়ান ০

ধোনি ক সোয়ান ব ব্রড ৩

গম্ভীর ক মরগান ব সোয়ান ৩

আর পি সিং ক প্রায়র ব ব্রড ০

ইশান্ত অপরাজিত ৭

শ্রীশান্থ ব সোয়ান ৬

অতিরিক্ত (বা-১২, লে-৭) ১৯

মোট (৯১ ওভারে অলআউট) ২৮৩

উইকেট পতন: ১-৪৯, ২-৬৪, ৩-১১৮, ৪-২৬২, ৫-২৬২, ৬-২৬৬, ৭-২৬৯, ৮-২৬৯, ৯-২৭৫, ১০-২৮৩।

বোলিং: অ্যান্ডারসন ১৭-৪-৫৪-১, ব্রড ২০-৬-৪৪-২ সোয়ান ৩৮-৬-১০৬-৬, ব্রেসনান ১১-২-৩০-১, বোপারা ৩-০-১৩-০, পিটারসেন ২-০-১৭-০।

ম্যাচের ফল: ইংল্যান্ড ইনিংস ও আট রানে জয়ী।

সিরিজ: ইংল্যান্ড ৪-০তে জয়ী।

ম্যান অব দ্য ম্যাচ: ইয়ান বেল (ইংল্যান্ড)।

ম্যান অব দ্য সিরিজ: রাহুল দ্রাবিড় ও স্টুয়ার্ট ব্রড।
#863573
শ্রীলংকার জয়ের জন্য দরকার আরো ৬৮ রান

কলম্বোর প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামে সিরিজের শেষ ও পঞ্চম ম্যাচে জয়ের দিকে এগিয়ে চলেছে শ্রীলংকা। অস্ট্রেলিয়ার ছুড়ে দেয়া ২১২ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুতে ৩ উইকেট হারিয়ে ফেললেও চামারা সিলভার (৬৩) হাফ সেঞ্চুরিতে দিশা ফিরে পায় লঙ্কানরা। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ৪ উইকেট হারিয়ে ১৪৪ রান করেছে তারা। ৩৭ ও ০ রান নিয়ে ব্যাট করছেন মাহেলা জয়াবর্ধনে ও অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস। জয়ের জন্য ২৩.২ ওভারে আরো ৬৮ রান দরকার তাদের। হাতে রয়েছে ৬ উইকেট।

এর আগে শ্রীলংকান বোলারদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ের মুখে ২১১ রানেই শেষ হয়ে যায় অস্ট্রেলিয়ার ইনিংস। ওপেনিংয়ে নেমে দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৫৬ রান করেন শেন ওয়াটসন।

টস জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় শ্রীলঙ্কার অধিনায়ক তিলকারত্নে দিলশান। কিন্তু ওয়াটসনের অর্ধশতকের পরও ৪৬.১ ওভারে ২১১ রানের বেশি তুলতে পারেনি অস্ট্রেলিয়া। পারত, যদি না শেষ দিকে লাসিথ মালিঙ্গা জ্বলে না উঠতেন। ৪৬তম ওভারে পরপর তিন বলে মিচেল জনসন, জন হেস্টিংস ও জ্যাভিয়ার ডোহার্টিকে ফিরিয়ে দিয়ে অস্ট্রেলিয়ার লেজ দ্রুত ছেটে দেন তিনি।

ওয়ানডেতে এটা তৃতীয় হ্যাটট্রিক তার। ফলে ওয়াসিম আকরাম, সাকলায়েন মুশতাক ও চামিন্দা ভাসকে টপকে তিনিই এখন ওয়ানডেতে সবচেয়ে বেশিসংখ্যক হ্যাটট্রিকের অধিকারী। এদের প্রত্যেকের দুটি করে হ্যাটট্রিক রয়েছে।

মালিঙ্গা আঘাত হানার আগ পর্যন্ত পথেই ছিল অস্ট্রেলিয়া। শামিন্দা এরাঙ্গা শন মার্শকে (২) দ্রুত ফিরিয়ে দিলেও ওয়াটসন ও রিকি পন্টিং দলকে ভালো অবস্থানের দিকে নিয়ে যান। দলীয় ৭১ রানের মাথায় পন্টিং (৩১) বিদায় নিলে একা হয়ে পড়েন ওয়াটসন। তৃতীয় উইকেটে অধিনায়ক মাইকেল ক্লার্কের সঙ্গে যোগ করেন ৫৬ রান। দলীয় ১২৭ রানের মাথায় বিদায় নেয়ার আগে করেন ৫৬ রান। তার ৮৪ বলের ইনিংসে ৬টি চার ও ১টি ছয় রয়েছে।

দলীয় ১৬৭ রানে পঞ্চম ব্যাটসম্যান হিসেবে ক্লার্কের (৪৭) বিদায়ের পর দলকে প্রায় একাই টানেন ডেভিড হাসি। শেষ পর্যন্ত দলীয় ২১০ রানের মাথায় ষষ্ঠ ব্যাটসম্যান হিসেবে প্যাভিলিয়নে ফেরার আগে ৫টি চার ও একটি ছয়ে ৪৬ রান করেন তিনি। হাসির বিদায়ের পরই হুড়মুড় করে ভেঙে পড়ে অস্ট্রেলিয়ার ইনিংস। ১ রান যোগ করতে শেষ চার উইকেট হারায় তারা।

শ্রীলঙ্কার পক্ষে মালিঙ্গা ৩৫ ও অজন্তা মেন্ডিস ৪৯ রান দিয়ে সমান তিনটি করে উইকেট নেন।
#863576
সীমিত ওভারের সিরিজ থেকে ছিটকে পড়লেন সেবাগ-ইশান্ত

ইনজুরির কারণে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজ থেকে ছিটকে পড়লেন ওপেরার বিরেন্দর সেবাগ ও পেসার ইশান্ত শর্মা। গতকাল সোমবার ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের সচিব এন শ্রীনিবাসন এক বিবৃতিতে একথা নিশ্চিত করেন। সেবাগ ও ইশান্তের পরিবর্তে এখনো আন্তর্জাতিক ক্রিকেট অভিষেক হয়নি এমন দ’ুজন তরুণ খেলোয়াড়কে দলে ডাকা হয়েছে। এরা হলেন ব্যাটসম্যান এ রাহানে (২৩) ও প্রতিশ্রুতিশীল পেস বোলার বরুণ অ্যারন। কাঁধের অস্ত্রোপচারের পর সেরে উঠতে না পারায় টেস্ট সিরিজের প্রথম দুটি ম্যাচ মিস করা সেবাগ তার ফিটনেস ফিরে পাবার জন্য পুনর্বাসন প্রক্রিয়া চালিয়ে যাবেন। এছাড়াও কানের সংক্রমণ থেকে সেরে উঠার জন্য তার দুই সপ্তাহ সময় লাগবে।

ভারতীয় বোর্ডের বিবৃতিতে বলা হয়, সেবাগ ২৪ জুলাই থেকে বাঁ কানের সমস্যায় ভুগছে। তার অবস্থার উন্নতি হলেও এখনো মাথাব্যথা রয়ে গেছে। অন্যদিকে, জহির খানের অনুপস্থিতিতে ভারতীয় পেস আক্রমণের নেতৃত্ব দেয়া ইশান্ত তৃতীয় টেস্ট থেকেই লিগামেন্ট ইনজুরিতে ভুগছেন। এর চিকিত্সার কারণেই সীমিত ওভারের সিরিজে খেলতে পারবেন না এই পেসার। ওয়ানডে ক্রিকেটের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ভারত ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে একটি টি-টোয়েন্টি ও পাঁচটি ওয়ানডে ম্যাচ খেলবে। ৩১ আগস্ট একমাত্র টি-টোয়েন্টি ম্যাচটি দিয়ে শুরু হবে সীমিত ওভারের সিরিজ।
#866020
Harbhajan Singh’s bowling action suspect: Ex- ICC umpire

Image

Darrell Hair, the ex- ICC umpire was identified to be solely critical of Sri Lankan off-spinner Muttiah Muralitharan’s bowling action, but this time, in his 360-page book (The Best Interest of the Game), the Aussie has made fabulous facts about suspect bowling actions of some other Asian bowlers too.
“Bowlers such as Harbhajan Singh and Shoaib Akhtar will forever have suspect actions,” Hair told MiD DAY. Harbhajan, when trying to bowl the doosra or impart over spin, begins with a curved arm before straightening his arm considerably while delivering the ball. Also, Shoaib Akhtar’s yorker ball differences his action to well past a ‘front on’ delivery stride. Therefore, it’s nearly not possible for him to remain his arm straight.”I described Harbajhan and Shoaib while umpiring; ICC must have lost record,” he explained.
The some other bowlers (with suspect actions) he’s named in his book are Pakistan’s Mohammad Hafeez, Bangladesh’s Abdur Razzaq, and South Africa’s Johan Botha. Interestingly, all of these bowlers have been claimed for their action at some phase. Harbhajan was sent to Fred Titmus’ school in England to seek guidance a few yrs ago.
#866064
ওয়ানডে সিরিজেই শচীনের শততম সেঞ্চুরি আসবে: গাঙ্গুলি

ভারতের সাবেক অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গলী মনে করছেন, ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ওয়ানডে সিরিজেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে শততম সেঞ্চুরি করে ফেলবেন শচীন টেন্ডুলকার।

ওভাল টেস্টে এই মাইলফলকের খুব কাছাকাছি গিয়েছিলেন শচীন। কিন্তু টিম ব্রেসনানের বলে ব্যক্তিগত ৯১ রানে অলআউট হওয়াতে শততম সেঞ্চুরিটা আর পাওয়া হয়নি তার। এ নিয়ে গাঙ্গুলি ‘মিড ডে’কে বলেন, তার এই আউটটি প্রমাণ করেছে ক্রিকেট এক বলের খেলা। আপনি যতই বলের দিকে নজর রাখেন না কেন, একটা ভাল বলই আপনাকে আউট করে ফেলতে পারে।

গাঙ্গুলি আরো বলেন, আমি জানি পুরো জাতি হতাশ হয়েছে। যেহেতু এই সিরিজটা ভুলে যাওয়ার মত, তাই তার ব্যাট থেকে আসা একটা সেঞ্চুরি তাদেরকে কিছুটা আনন্দ দিত।

তবে গাঙ্গুলি আত্মবিশ্বাসী ওয়ানডে সিরিজেই আবারো রানে ফিরবেন শচীন। তিনি বলেন, আমি অনেকটাই নিশ্চিত ওয়ানডে সিরিজেই শচীন সেঞ্চুরি পাবেন। এটা ভুলে গেলে চলবে না শচীনও একজন মানুষ। সে ৯৯টি সেঞ্চুরি করেছে, তাই সে অবশ্যই ১০০ সেঞ্চুরির মাইলফলকে পৌঁছাবে। আমি তাকে নিয়ে গর্বিত না হয়ে পারি না। শচীনের সাথে তার প্রথম দেখা হবার দিনটি স্মরণ করে এখনো স্মৃতিকাতর হয়ে পড়েন গাঙ্গুলি। তিনি বলেন, আমি তখন টিনএজার। কৈলাশ গাত্তানির স্টার ক্রিকেট ক্লাবের হয়ে প্রথমবারের মত ইংল্যান্ডে এসেছি। সে দলে শচীনও ছিল। আমি তাকে দেখি এবং আমার কোন সন্দেহই ছিল না যে, সে একদিন গ্রেট খেলোয়াড় হবে। সেই সফরটা ছিল অবিশ্বাস্য।

চার টেস্টের আট ইনিংসে ২৭৩ রান করেন শচীন। গড় ৩৪.১২। যা তার ক্যারিয়ার গড়ের চেয়ে অনেক কম। কিন্তু বেশি রান না পেলেও গাঙ্গুলি মনে করেন না শচীন এই সিরিজে খারাপ খেলেছে। তিনি বলেন, ইংল্যান্ডে তার টেস্ট সিরিজটা খারাপ ছিল না। লর্ডসে সে ভাল ব্যাট করতে শুরু করেছিল। এটা আসলে ঐসব সিরিজগুলোর মত যখন কোন কিছুই ঠিকঠাক মত হয় না।

#866065
টি-টোয়েন্টি সিরিজের ক্যারিবিয়ানদের নতুন দল

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ড ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দুই ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের জন্য নতুন দল ঘোষণা করেছে। ২৩ ও ২৫ সেপ্টেম্বরে ওভালে শুরু হওয়া এই দুটি ম্যাচে নতুন হিসেবে এই দলে ডাক পেয়েছেন চারজন খেলোয়াড়। আর বোর্ডের সাথে ঝামেলার কারণে দলে ডাক পাননি উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান ক্রিস গেইল এবং অভিজ্ঞ খেলোয়াড় কিয়েরন পোলার্ড, ডোয়াইন ব্র্যাভো, ড্যারেন ব্র্যাভো, লেল্ডল সিমন্স, আড্রিয়ান বারাথ ও রবি রামপল।

ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি প্রতিযোগিতায় অংশ না নেয়ায় প্রথম তিনজনকে এ বছরের শুরু থেকে টি-টোয়েন্টি দলে নেয়া হয়নি। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ত্রিনিদাদ ও টোবাগোর হয়ে খেলার জন্য দলে নেই শেষ চারজন।

অধিনায়ক রয়েছেন ড্যারেন স্যামি, যিনি বাংলাদেশ ও ভারত সফরেও দলকে নেতৃত্ব দিবেন। ১৪ সদস্যের দলে ফিরেছেন ডোয়াইন স্মিথ। শেষবার মাঠে নেমেছিলেন তিনি ২০১০ সালের শুরুতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে।

এছাড়া নতুন চার মুখ হলেন মাইলেস বাসকম্ব, জনসন চার্লস, নক্রমা বুনের ও ডারউন ক্রিস্টিয়ান। তাদের মধ্যে প্রথম দুইজন ব্যাটসম্যান। বুনের অলরাউন্ডার ও ক্রিস্টিয়ান উইকেটরক্ষক।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ‘এ’ দলের হয়ে ভালো খেলার পুরস্কার হিসেবে দলে জায়গা পেয়েছেন বাসকম্ব ও চার্লস দু’জনই।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ দল: ড্যারেন সামি (অধিনায়ক), ক্রিস্টোফার বার্নওয়েল, মাইলেস বাসকম্ব, দেবেন্দ্র বিশু, নক্রুমা বুনের, জনসন চার্লস, ডারউন ক্রিস্টিয়ান (উইকেটরক্ষক), ফিদেল এডোয়ার্ডস, ডেনজা হেয়াট, অ্যাশলে নার্স, আন্দ্রে রাসেল, মারলন স্যামুয়েলস, ক্রিসমার স্যান্টোকি ও ডোয়াইন স্মিথ।
#866067
দল গঠন নিয়ে বিপাকে অস্ট্রেলিয়া

তিন দিনের প্রস্তুতি ম্যাচ আজ

কলম্বোর পি সারা স্টেডিয়ামে আজ বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হচ্ছে সফরের একমাত্র তিনদিনের প্রস্তুতি ম্যাচটি। এতে সফরকারী অস্ট্রেলিয়া মুখোমুখি হবে শ্রীলংকা বোর্ড একাদশের।

কিন্তু এ ম্যাচ নিয়ে বিপাকে পড়েছে অজিরা। ম্যাচটি প্রথম শ্রেণীর হিসেবে বিবেচিত হওয়ায় ১১ জনের বেশি খেলোয়াড় খেলানো যাবে না। কিন্তু ওয়ানডে সিরিজে যারা খেলেননি তাদের এখনো কোন ম্যাচ প্র্যাকটিসের সুযোগ হয়নি। তার মধ্যে টেস্টের আগে এটা একমাত্র প্রস্তুতি ম্যাচ হওয়ায় আজকে যারা খেলতে পারবেন না তাদের পরবর্তীতে সে সুযোগও নেই। এটাই বেশি ভাবাচ্ছে অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক মাইকেল ক্লার্ককে।

অজি অধিনায়ক নিশ্চিত করেছেন ওপেনার ফিল হাজেস তিন দিনের ম্যাচটি খেলছেন। কিন্তু বোলিং বিভাগ নিয়েই তাকে মাথা ঘামাতে হচ্ছে বেশি। মিচেল জনসন ও জেমস প্যাটিসন খেলবেন এটা ধরেই নেয়া যায়। কিন্তু বোলিং বিভাগের রায়ান হ্যারিস, পিটার সিডল, ট্রেন্ট কোপল্যান্ড, নাথান লিওন ও মাইকেল বিয়ার এই সফরে এখন পর্যন্ত কোন ম্যাচই খেলেননি।

প্রথম টেস্টের জন্য দল গঠন করাটা তাই আরো কঠিন হয়ে গেছে ক্লার্ক, গ্রেগ চ্যাপেল ও টিম নিলসেনের জন্য। প্রথম টেস্টের স্টেডিয়াম গলের স্পিন সহায়তার ইতিহাস রয়েছে। কিন্তু তারা এখনো নিশ্চিত নয় একাধিক স্পেশালিস্ট স্পিনার খেলানোর মত সহযোগিতা পাওয়া যাবে কিনা। সেই ২০০৬ সালে একত্রে তিনজন স্পিনার (শেন ওয়ার্ন, স্টুয়ার্ট ম্যাকগিল ও ডেন কালেন) খেলিয়েছিল অস্ট্রেলিয়া। এরপর আর এমনটি ঘটেনি।
#866841
Pakistan need a overseas coach: Geoff Lawson

Image

Ex- Pakistan coach Geoff Lawson thinks that PCB should hire a overseas coach when they seek a substitute for Waqar Younis. Younis declared on the weekend that he would be stepping down from the part of head coach after the forthcoming trip of Zimbabwe, mentioning private and wellness reasons behind his judgement.
Lawson succeeded Bob Woolmer as coach of Pakistan, taking over in July 2007 in the wake of Woolmer’s untimely death and he thinks that a overseas coach is finest suitable to the Pakistan work because he’s much better capable to overlook the politics. “I says it when I left as well, Pakistan require a overseas coach. “Whether you come from Karachi or Lahore, the stress on you from external sources does not let you do the perform correctly. “A overseas coach won’t have that extra baggage. He won’t stress about politics but will just focus on producing the finest squad he can.” Some have mentioned speech issues as a key hurdle to overseas trainers working with Pakistani cricketers, while others think that a absence of know-how of the system is yet another problem.
“In my time period, language was not a issue,” countered Geoff Lawson. “The typical language was cricket and that’s all they had to realize. “In my Kochi squad, some cricketrs do not communicate Hindi so they talk in English. It is just an excuse of not hiring a overseas coach despite all the expertise and support he can bring to Pakistan cricket.”
#867504
শ্রীলংকার টেস্ট দলে দুই নতুন মুখ

অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজের জন্য শ্রীলংকান নির্বাচকরা প্রসন্ন এরাঙ্গাকে জাতীয় দলে অন্তর্ভুক্ত করেছে। ২৬ বছর বয়সী প্রসন্ন গত সপ্তাহে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে অভিষেক ওয়ানডে ম্যাচে তিনটি উইকেট নিয়ে আলোচনায় উঠে আসেন। প্রসন্নের পাশাপাশি আরেক অভিষেক খেলোয়াড় শামিন্দা এরাঙ্গা ওয়ানডে সিরিজে সবাইকে বেশ তাক লাগিয়ে দিয়েছেন। অস্ট্রেলিয়ার কাছে ২-৩ ম্যাচে হারার কারণও অভিষেক এই খেলোয়াড়ের পারফর্মেন্স।

শ্রীলংকার দলে নতুন এই দুই খেলোয়াড় বল করবেন সুরজ রন্ডিব ও অজেন্তা মেন্ডিসের মত সেরা স্পিনারদের সাথে। তবে পেসার লাসিত মালিঙ্গাকে নিয়ে সংশয়ে রয়েছে লংকান ক্রিকেট বোর্ড। অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজটি গলেতে শুরু হবে আগামী বুধবার ৩১ আগস্ট থেকে। তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজের বাকি দুই ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে ৮ সেপ্টেম্বর পাল্লেকেলে এবং ১৬ সেপ্টেম্বর সিংহলিজ স্পোর্টস ক্লাব মাঠে।

টেস্ট সিরিজের শ্রীলংকা দল:

তিলকরাত্নে দিলশান (অধিনায়ক), থারাঙ্গা পরানাভিথারানা, কুমার সাঙ্গাকারা, মাহেলা জয়বর্ধনে, থিলান সামারাভিরা, প্রসন্ন জয়বর্ধনে, এঞ্জেলা ম্যাথুয়েস, সুরুজ রন্ডিব, সুরঙ্গ লকমল, চনাকা ওয়েলেগেদারা, ধামিকা প্রসাদ, শামিন্দা এরেঙ্গা, লাহিরু থ্রিমানে।

#867505
জিম্বাবুয়েকে হাল্কাভাবে নেয়া উচিত হবে না- ওয়াকার

পাকিস্তানের বিদায়ী কোচ ওয়াকার ইউনুস বলেছেন, তার দলকে জিম্বাবুয়ের বিরুদ্ধে মাঠে নামার আগে নিজেদের দুর্বলতাগুলো কাটিয়ে উঠতে হবে। সেই সাথে জিম্বাবুয়েকে হারাতে হলে ভালো পারফর্মেন্সও দরকার বলে মনে করেন পাকিস্তানের সাবেক এই তারকা। আগামী বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হওয়া জিম্বাবুয়ের বিরুদ্ধে টেস্ট ও ওয়ানডে সিরিজের আগে পাকিস্তানকে সজাগ থাকার কথা বললেন তিনি।

জিম্বাবুয়ে সিরিজকে সামনে রেখে সাবেক অধিনায়ক শোয়েব মালিককে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। প্রায় এক বছর দলের বাইরে থাকার পর অবশেষে তিনি দলে ফিরলেন, তার সাথে কিছু নতুন খেলোয়াড়ও দলে অন্তর্ভুক্ত হয়েছেন। বুলাওয়েতে শুরু হওয়া একটি টেস্ট, তিনটি ওয়ানডে ম্যাচ ও একটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলার জন্য জিম্বাবুয়ের বিরুদ্ধে পাকিস্তানও তৈরি। ২০০২/২০০৩ সালের পর এটিই পাকিস্তানের জিম্বাবুয়ের পূর্ণাঙ্গ সফর। সম্প্রতি বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ভালো পারফর্মেন্স করায় জিম্বাবুয়ে তাদেরকে হারিয়েছে। অবশ্য যোগ্য দল হিসেবেই জিম্বাবুয়ে এই জয়ের কৃতিত্ব পাবে বলে মনে করেন পাকিস্তানের কোচ ওয়াকার। তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশের বিরুদ্ধে তারা যে পারফর্মেন্স দেখিয়েছে তাতে এই জয়ের কৃতিত্ব তারাই পাবেন’। জিম্বাবুয়ের এই সিরিজ শেষে ওয়াকার ইউনুস পাকিস্তানের কোচ পদ থেকে সরে দাঁড়াচ্ছেন। যদিও সাবেক ক্রিকেট তারকারা তাকে আটকানোর জন্য চেষ্টা করছেন। এমনকি কারো কারো সন্দেহ হচ্ছে, ওয়াকারের চলে যাওয়ার পিছনে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডেরও হাত রয়েছে।

জিম্বাবুয়ের এই সিরিজ প্রসংগে বিমানবন্দর ছাড়ার আগে ওয়াকার আরো বলেন, আন্তর্জাতিক অঙ্গনে জিম্বাবুয়ে পরিণত একটি দল সেটি তারা প্রমাণ করেছে। ছয় বছর পর তারা টেস্ট ক্রিকেটে ফিরেছে, দীর্ঘদিন পর টেস্ট আঙ্গিনায় ফিরে এমনিতে জিম্বাবুয়ে প্রতিপক্ষের উপর ক্ষুদার্ত বাঘের মত ঝাঁপিয়ে পড়বে, সেই সাথে তরুণ কিছু খেলোয়াড় দলে যোগ হওয়ায় তাদের লক্ষ্যও থাকবে অটুট। আমাদেরকেও সতর্ক থাকতে হবে এবং ভালো পারফর্মেন্স করতে হবে।

জিম্বাবুয়ে এই সিরিজকে ঘিরে ওয়াকার অবশ্য দলে বেশ কিছু নতুন খেলোয়াড়তে অন্তর্ভুক্ত করেছেন। বয়সে তরুণ হলেও জিম্বাবুয়ের এই সফরটি নতুনদের জন্য অভিজ্ঞতার ডালি এনে দিবে বলে মনে করেন এই কোচ।

ওয়াকার বলেন, আমরা জিম্বাবুয়েকে ছোট করে দেখছি না, আমরা জানি এই সিরিজটি আমাদের জন্য কঠিন সিরিজ হতে যাচ্ছে। তবে আমাদেরও কিছু ট্যালেন্ট খেলোয়াড় রয়েছে, সেই সাথে দলে রয়েছেন অভিজ্ঞ ইউনূস, মিসবাহ, হাফিজ এবং মালিকের মত খেলোয়াড়। তাই আমরাও প্রস্তুত এই সিরিজের জন্য।

আগামী ২৮ আগস্ট জিম্বাবুয়ে বোর্ড একাদশের বিরুদ্ধে তিনদিনের প্রস্তুতি ম্যাচ দিয়ে পাকিস্তানের জিম্বাবুয়ে সফর শুরু হবে। ১ সেপ্টেম্বর বুলাওয়েতে অনুষ্ঠিত হবে একমাত্র টেস্ট ম্যাচ। আর তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজটি শুরু হবে ৮ সেপ্টেম্বর থেকে।
#867507
ভারতীয় দলে তরুণদের চান সাবেকরা

ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজে দলের ভরাডুবির পর জরুরী ভিত্তিতে দলে তরুণদের অন্তর্ভুক্তির প্রয়োজনীয়তা অনুভব করছেন ভারতের সাবেকরা।

ভারতের সাবেক অধিনায়ক অনিল কুম্বলের মতে, ভারতকে আবারো শীর্ষে যেতে কয়েক বছর সময় লাগবে। এজন্য দলের পুনর্গঠনের জন্য বিরাট কোহলি, সুরেশ রায়না, রোহিত শর্মা ও যুবরাজ সিংদের সুযোগ দিতে হবে। তিনি এএফপিকে বলেন, তাদের বড় সময়ের জন্য সুযোগ দিতে হবে। আপনি হয়ত শীঘ্রই ভারতকে শীর্ষে ফিরতে দেখবেন না। কিন্তু আমাদের নিশ্চিত করতে হবে এই তরুণদের নিয়ে আমরা তিন নম্বরে থাকব এবং কয়েক বছর পর শীর্ষে উঠব।

আরেক সাবেক অরুন লালের কণ্ঠেও কুম্বলের কথারই প্রতিধ্বনি। তিনি বলেন, আপনি ৩৫ অথবা ৩৮ বছর বয়সীদের নিয়ে আজীবন খেলতে পারবেন না। দলে তরুণদের সম্পৃক্ত করা প্রয়োজন। ইংল্যান্ডে দলের বিপর্যয় এক দিক দিয়ে ভালই হয়েছে। আমাদের একটা ধাক্কা খাওয়া ভাল ছিল।

শচীন টেন্ডুলকার, রাহুল দ্রাবিড়, ভিভিএস লক্ষণদের দিকে ইঙ্গিত করে ভারতের বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক কপিল দেব বলেন, আমরা ভাগ্যবান তাদের মত খেলোয়াড়দের একসাথে পেয়েছিলাম। কিন্ত তারাতো আজীবন খেলবে না। তাদের জায়গা পূরণ করা সহজ হবে না। গত সপ্তাহে অস্ট্রেলিয়ার অ্যাশেজ ব্যর্থতার তদন্ত রিপোর্ট জমা দেবার পর সেদেশের ক্রিকেটে বেশ বড় ধরনের পরিবর্তন হয়েছে। অনেকের মতে ভারতেও এ ধরনের কিছু ঘটতে পারে। কিন্তু সাবেক অধিনায়ক মনসুর আলী খান পতৌদি তেমনটা মনে করেন না। তিনি বলেন, আমার মনে হয় না বিসিসিআই কোন দূরদর্শিতার পরিচয় দিতে যাচ্ছে। ভারতে ক্রিকেট যেভাবে চলছে, সেভাবেই চলতে থাকবে। আমি আন্তরিকভাবে আশা করব যাতে কিছুটা শুভবুদ্ধির উদয় হয়।

আরেক সাবেক অধিনায়ক রবি শাস্ত্রী আবার ভিন্ন ধরনের চিন্তা-ভাবনা করছেন। তার মতে, এখনই সময় হয়েছে ভিন্ন ধরনের ক্রিকেটে ভিন্ন খেলোয়াড় বেছে নেবার।
#868272
এসেক্সকেহারিয়ে ইংল্যান্ডসফরে ভারতেরপ্রথম জয়

Image

কদিন পরেই শুরু হবে ইংল্যান্ড-ভারত সীমিত ওভারের সিরিজ। সেসময় ভারত কেমন খেলবে—সেটা সময়ই বলে দেবে। তবে, এটাকে সামনে রেখে ভারতের শুরুটা ভালোই হলো। ইংল্যান্ড সফরে এ প্রথমবারের মতো কোনো ম্যাচে জয় পেল সফরকারীরা। সীমিত ওভারের সিরিজের আগে প্রথম প্রস্তুতি ২৫ বল বাকি থাকতেই ম্যাচে কাউন্টি দল এসেক্সকে ৬ উইকেটে হারিয়েছে মহেন্দ্র সিং ধোনির দল।

হোভে টস জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় ভারত। ব্যাট করতে নেমে ম্যাট মাচানের অর্ধশতকের পরও ৪৫ ওভারে ২৩৬ রানে গুটিয়ে যায় এসেক্স। জবাবে পার্থিব প্যাটেল, বিরাট কোহলি ও রোহিত শর্মার তিনটি হাফসেঞ্চুরির ওপর ভর করে ৪০.৫ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে জয়ের লক্ষ্যে পৌঁছে যায় ভারত। এসেক্সের ব্যাটিংয়ের সময় দুবার বৃষ্টি নামলে প্রতি ইনিংসের দৈর্ঘ্য পাঁচ করে ওভার কমে আসে। লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ৪১ রানের মধ্যে শচীন টেন্ডুলকারকে (২১) হারালেও অন্য উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান পার্থিব দলকে পথেই রাখেন। দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে পার্থিব ও কোহলি ৬৩ রান যোগ করে দলকে বড় জয়ের ভিত গড়ে দেন। দলীয় ১০৪ রানে পার্থিব (৫৫) বিদায় নিলেও অবিচল ছিলেন কোহলি। পার্থিব তার ৬৫ বলের ইনিংসটি সাজান ৯টি চার দিয়ে। তৃতীয় উইকেটে কোহলি ও রোহিত আরো ১০৪ রান যোগ করে জয়কে সময়ের ব্যাপারে পরিণত করেন। দলীয় ২০৮ রানের তৃতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে সাজঘরের পথ ধরেন কোহলি (৭১)। তার ১০৫ বলের ইনিংসে ৬টি চার ও একটি ছয় রয়েছে।

কোহলির বিদায়ের পর চতুর্থ ব্যাটসম্যান হিসেবে তাকে অনুসরণ করেন সুরেশ রায়না (১২)। টেস্টে পুরোপুরি নিষ্প্রভ রায়না বেশ চাপে রয়েছেন। একদিকে তিনি রান পাচ্ছেন না অন্যদিকে রোহিত আছেন রানের মধ্যে।

শেষ পর্যন্ত ৬১ রানে অপরাজিত থেকে দলকে জিতিয়েই মাঠ ছাড়েন রোহিত। এ ইনিংস খেলতে ৮টি চার ও একটি ছয় মারেন তিনি এবং বল খেলেন ৬৫টি। এসেক্সের পক্ষে আমজাদ খান, নাভেদ আরিফ, ক্রিস লিল্ডল ও ক্রিস ন্যাশ একটি করে উইকেট নেন। এর আগে ব্যাট করতে নেমে ভারতীয় বোলারদের হিসেবি বোলিংয়ের কারণে শুরুটা ভালো হয়নি এসেক্সের। ৫৮ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে বেশ চাপে পড়ে তারা। কিন্তু মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানদের দৃঢ়তায় শেষ পর্যন্ত খেলায় ফিরে তারা।

চতুর্থ উইকেট জুটিতে জো গ্যাটিং ও মাচান ৪৭ রানের জুটি গড়ে প্রাথমিক ধাক্কা সামাল দেন। দলীয় ১০৫ রানের মাথায় গ্যাটিং (৪৬) বিদায় নিলে একা হয়ে পড়েন মাচান।

মাচান ও বেন ব্রাউন পঞ্চম উইকেটে যোগ করেন আরো ৬৫ রান। এ জুটি দলকে লড়াই করার ভিত গড়ে দেন। নিজের অর্ধশতকে পৌঁছে মাচান (৫৬) বিদায় নিলে খেলায় ফিরে ভারত। মাচান তার ৬২ বলের ইনিংসটি সাজান ৫টি চার দিয়ে।

নিজের অর্ধশতক থেকে দুই রান দূরে দাঁড়িয়ে ব্রাউন বিদায় নিলে সংগ্রহ আরো বড় করার সুযোগ হারায় এসেক্স। ২১৮ রানে ব্রাউনের বিদায়ের পর আরো ১৮ রান যোগ করতে শেষ ৪ উইকেট হারায় তারা। ভারতের পক্ষে রুদ্র প্রতাপ সিং ৪ উইকেট নেন ৪৫ রানে।
#868833
Indian team caught in a bomb scare at Kent county ground

Image

The Indian squad was reported to be caught in a bomb scare right after their T20 tour game versus Kent on Friday.
As per the reports, the regional authorities instantly swung into action and suggested Indian cricketers to depart the changing room and go into the ground after it was cautioned to them that a suspect box was discovered in a bin.
Indian captain MS Dhoni and his cricketers were kept awaiting almost 1 hour before they left the ground in a fleet of taxis with a police escort. Team India had to be escorted by a fleet of taxis with police force escort after nearly an hour’ s wait on the ground.The spot was crawling with the bomb squad,” a witness says.
The authorities failed to give in details of the incident. This was the 2nd bomb scare in Kent on Friday after a phone call of bomb scare on railway station was made to cops.
#869510
Zulqarnain Haider gets selection snub from all districts

Image

Zulqarnain Haider, Pakistan wicketkeeper has was unable to find himself in any side for the forthcoming national T20 contest. The event will be played from Sept 25, at Gaddafi Stadium in Lahore. After the massive success of Faysal Bank Super Eight T20 Cup in Faisalabad, PCB had made a decision to allocate the next national T20 to a smaller city.
The contest was first planned to take place in Rawalpindi, but postpone in the renovation work at the ground meant Rawalpindi was stripped off the tournament in favour of Lahore. The tournament will feature 13 district sides and a team from Afghanistan. The sides will be categorised in 2 groups of seven. The other sides are Lahore Lions, Lahore Eagles, Karachi Dolphins, Karachi Zebras, Rawalpindi Rams, Sialkot Stallions, Islamabad Leopards, Abbottabad Falcons, Multan Tigers, Quetta Bears, Peshawar Panthers, Faisalabad Wolves and Hyderabad Hawks.
Zulqarnain Haider, hailing from Lahore, wasn’t chosen by Lahore City Cricket association for both of its sides, Lahore Eagles and Lahore Lions. A year ago he performed for the Eagles team, but now he has been substituted by Adnan Akmal, whose elder brother will represent the Lions. President of the Lahore region, Khawaja Nadeem described that they desired a person who’s physically fit and in form, and as Haider was out of action so he was overlooked.
Zulqarnain Haider says: “It is unsatisfying to not be considered in either of the Lahore teams because this is my home district and if they do not select me, who will.” After being ditched by Lahore, he approached Karachi and Multan but didn’t get the nod from them either. He’s eager to play yet again but it seems he has to wait a little longer before he’s seen in action once again.
#871292
Gambhir uncertain for ODI series against England

Image

With minor progress in his agonising problem in the previous ten days, India`s opener batsman Gautam Gambhir could be taking his suitcases to come back home. In what could be a massive setback to the plan of Indian team in the upcoming ODI series, Gambhir is probably to suffer the luck of the likes of Zaheer, Yuvraj, Harbhajan and Sehwag who came or connected the Indian team and departed without lending greatly to the squad`s cause.
India has been whitewashed 4-0 in the Test sequence; missing their number 1 Test ratings and is in chance of struggling a similar debilitating luck in the ODI series, beginning with the first match in Chester-le-Street on Sept 3.Gambhir had backpedalled to catch a pull by Kevin Pietersen at mid-on on the 2nd day of the last Test at the Oval on August 19 but tripped and fell on his head and eventually suffered from a blurred vision.
Gambhir didn`t open in each innings of the Oval Test and dropped late in the order, adding little by way of runs. He has visited physicians and got MRI tests done which have found clean results, yet Gambhir`s problem hasn`t much better.
With minor progress in his agonising problem in the last ten days, India`s opener batsman Gautam Gambhir could be taking his suitcases to come back home.In what could be a massive setback to the plan of the defending world champs in the upcoming ODI series, Gambhir is probably to suffer the luck of the likes of Zaheer Khan, Yuvraj Singh, Harbhajan Singh and Virender Sehwag who came or joined the Indian team and departed without lending significantly to the squad`s cause.
India has been whitewashed 4-0 in the Test sequence; lost their number 1 Test ratings and is in chance of battling a similar debilitating luck in the ODI series, beginning with the first match in Chester-le-Street on Sept 3.Gambhir had backpedalled to catch a pull by Kevin Pietersen at mid-on on the 2nd day of the last Test at the Oval on August 19 but tripped and fell on his head and eventually suffered from a blurred vision.He didn`t open in each innings of the Oval Test and dropped late in the order, adding little by way of runs.He has visited physicians and got MRI tests done which have found clean results, yet Gambhir`s problem hasn`t much better.
#873058
Indian Skipper MS Dhoni Becomes a Doctor

Image

Indian captain MS Dhoni was on Monday honored an honorary doctorate by De Montfort University after the conclusion of a T20 practice game against Leicestershire on Monday. Dhoni was recognized for his excellent leadership quality and successes before he turned an Honorary Doctor of Letters at a event.
Dhoni has obtained several landmarks in his job. Under his captaincy, the Indian squad achieved in the 2007 ICC world t20 competition, the 2007-08 Commonwealth Bank one day series and most currently the this year cricket world cup. He retains records for the most catches in an innings and the best unbeaten run as a skipper. He also retains the honor for the quickest century scored by an Indian wicket-keeper.
In 08 and 09, MS Dhoni was also named the ICC`s ODI crickter of the yr. MS Dhoni is recently captaining the Indian squad, which has been whitewashed 0-4 in the just-concluded Test sequence by England.
The ODI series will begin with a one off T20 game on August 31.
#915710
Controversial commercial terming Pak cricketers match-fixers removed

Image

A New Zealand brewery firm has removed a controversial commercial campaign, which shown fast bowler Daryl Tuffey taking a dig at Pakistan players over match-fixing scams, following furious responses from the PCB and the Pak community.
The Moa Brewing Co. had released the commercial campaign, featuring Tuffey, where he says that Pakistani cricketers are match fixers and while New Zealand succeed matches, the Pakistanis take home cash cheques.
The commercial drew powerful criticism from the Pakistani community in NA with Dunedin-based Ex- Test cricketer and coach Khalid Ibadullah terming the advertising campaign as “quite insulting and quite offensive”. Khalid Ibadullah also drew the focus of the PCB to the campaign, which responded really solidly to it and made a decision to look into the issue.
A PCB spokesperson says that the commercial has been removed now after the issue was taken up with the firm.The firm had earlier protected the ad mentioning that Pakistan cricket has been hit hard by match fixing claims and that 3 of its leading cricketers — were in fact suspended by the ICC for spot-fixing a year ago.
The PCB official had says while it was correct that the 3 cricketers were suspended for spot-fixing but that didn`t give the firm the right to cast slurs on Pakistan cricket.
#915712
Badrinath replaces unfit Sachin Tendulkar

Image

Subramaniam Badrinath was on Monday called as substitute for Sachin Tedulkar who’s been ruled out of the remainder of India`s on-going 5 match ODI sequence against England caused by a foot problem.
Tendulkar was carrying the problem for a while but the injury aggravated just before the initial game of the series at Chester-le-Street on Saturday, finally paving the way for Parthiv Patel`s final moment inclusion to the playing 11.
Tendulkar has been ruled out of the on-going ODI sequence against England due to a foot pain. He’s been suggested rest for a month. The All-India Senior Selection Committee has selected S Badrinath to substitute him,” BCCI secretary N Srinivasan says in a report.Badrinath, who made his ODI first appearance against Sri Lanka in the year 2008, has scored 79 runs in 7 matches so far.
Badrinath was also in the team for India`s tour of West Indies a few months ago, but didn’t impress. It’s been a devastating trip for India as numerous top cricketers suffered problems at different phases.